Thursday, June 7, 2018

নাগরিকপঞ্জি নবায়নঃ বরাকবঙ্গের পুস্তিকা

নাগরিক পঞ্জি নবায়ন প্রক্রিয়া চলাকালীন অসমে অসমিয়া বাঙালি বিরোধ, উত্তেজনা ,উদ্বেগ-- নিয়ে বরাক উপত্যকা বঙ্গ সাহিত্যের এই ছোট পুস্তিকা, দলিল হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। সংরক্ষণ করে রাখা দরকার ভেবে আমরা এখানে তুলে দিলাম।
         পুরো কাগজটি  আপনি নির্বিঘ্নে এখানে পড়তে পাবেন। আপনার কম্পিউটারের পুরো পর্দা জুড়ে পড়তে পারেন। নামিয়ে নিয়ে পরে অবসরেও পড়তে পারেন। তার জন্যে নিচের বোতামগুলো ব্যবহার করুন। আপনার শুধু দরকার   পড়তে পারে এডোব ফ্লাসপ্লেয়ারের।সেটি এখান থেকে নামিয়ে নিন। আর মোবাইলে পড়লে ব্লগার এবং স্ক্রাইবড নামিয়ে নিলে সুবিধে। 

Wednesday, May 30, 2018

বর্ণমালার রোদ্দুর: ১৯শে মে, ২০১৮


      
     র্ণমালার রোদ্দুর' শিলচরের ভাষা শহীদ স্টেশন শহীদ স্মরণ  সমিতির মুখপত্র', বেরোয় শিলচর থেকে। ১৯শে মে দিনে। শুরু থেকেই সম্পাদনা করে আসছেন সমিতির সম্পাদক ডাঃরাজীব কর। এবারে ২০১৮তেও তিনিই করেছেন।  প্রতিবারের মতোই এবারেও সাজিয়েছেন দিনটির সামাজিক , রাজনৈতিক , সাংস্কৃতিক তাৎপর্য বাহী বেশ কিছু প্রাসঙ্গিক  অনু নিবন্ধ এবং কবিতা দিয়ে। লিখেছেন আসাম এবং আসামের বাইরেরও বহু লেখক। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন অধ্যাপক তপোধীর ভট্টাচার্য, অমরদীপ চক্রবর্তী,  সনৎ কৈরি, ইমাদ উদ্দিন বুলবুল, শৈলেন সাহা প্রমুখ অনেকে।  বহু অনুপ্রবন্ধের সঙ্গে রয়েছে একগুচ্ছ কবিতাও।

       বর্তমান সংখ্যাটি ষোড়শ সংখ্যা।  এই নিয়ে কাগজটির ছটি   সংখ্যা 'কাঠের নৌকাতে' চড়ল।  নিচের বিষয় শ্রেণিতে ক্লিক করে আগেকার সংখ্যাগুলোতেও যেতে পারবেন সহজেই।
ছাপা সংস্করণ পেতে সম্পাদকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন এই ঠিকানাতে। 


           পুরো কাগজটি  আপনি নির্বিঘ্নে এখানে পড়তে পাবেন। আপনার কম্পিউটারের পুরো পর্দা জুড়ে পড়তে পারেন। নামিয়ে নিয়ে পরে অবসরেও পড়তে পারেন। তার জন্যে নিচের বোতামগুলো ব্যবহার করুন। আপনার শুধু দরকার   পড়তে পারে এডোব ফ্লাসপ্লেয়ারের।সেটি এখান থেকে নামিয়ে নিন। আর মোবাইলে পড়লে ব্লগার এবং স্ক্রাইবড নামিয়ে নিলে সুবিধে। 


Monday, May 28, 2018

উনিশে মে---একাদশ বর্ষ সংখ্যা



  "উনিশে মে" কাগজটি গেল এক দশক ধরে বেরোয় কলকাতা থেকে।  নিয়মিত বেরুচ্ছে ১৯শে মে, ভাষা শহীদ দিবসে। সম্পাদক শান্তনু গঙ্গারিডি ।  সম্পাদক মণ্ডলীতে রয়েছেন আসাম পশ্চিম বাংলার বেশ কজন লেখক সম্পাদক শান্তনু ছাড়াও রণবীর পুরকায়স্থ, দেবাশিস চন্দ, রাজীব কর, সনৎ কুমার কৈরী, বিশ্বজিৎ রায়, তাপস রায়, নাসের হোসেন।মনোতোষ চক্রবর্তী, সুশীল পাঁজা। এর মধ্যে শান্তনু আসলে শান্তনু গুপ্ত। অসম থেকে পশ্চিমবাংলাতে প্রবাসী লেখক সম্পাদক। দিনটির বার্তা প্রবাসেও পৌঁছে দিতে তিনি অবিরত উদ্যোগী। সে তাঁর কাজেই বোঝা যায়। খ্যাত-অখ্যাত লেখকের  অজস্র কবিতা, বেশ কিছু চিন্তা সমৃদ্ধ নিবন্ধে সংখ্যাটি সাজিয়েছেন। তার কিছু ১৯শের ইতিবৃত্ত নিয়ে, কিছু সাধারণ ভাবে বাংলা ভাষা এবং প্রযুক্তির সমস্যা নিয়ে। লেখক তালিকাতে রয়েছেন আসাম, ত্রিপুরা পশ্চিম বাংলার লেখকেরা।
          ছাপা সংস্করণটি ১৯শে মে,২০১৮  সর্বভারতীয় বাংলা ভাষা মঞ্চ আয়োজিত ১৯শের শহীদ স্মরণ অনুষ্ঠানে বৌদ্ধ ধর্মাংকুর সভাগৃহ, কলকাতাতে। ছারা সংস্করণ পেতে বা সম্পাদকের সঙ্গে যোগাযোগের জন্যে এখানে দেখুন...

     পুরো কাগজটি  আপনি নির্বিঘ্নে এখানে পড়তে পাবেন। আপনার কম্পিউটারের পুরো পর্দা জুড়ে পড়তে পারেন। নামিয়ে নিয়ে পরে অবসরেও পড়তে পারেন। তার জন্যে নিচের বোতামগুলো ব্যবহার করুন। আপনার শুধু দরকার   পড়তে পারে এডোব ফ্লাসপ্লেয়ারের।সেটি এখান থেকে নামিয়ে নিন। আর মোবাইলে পড়লে ব্লগার এবং স্ক্রাইবড নামিয়ে নিলে সুবিধে। 
Related Posts with Thumbnails